• মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৭ ১৪৩১

  • || ১৫ মুহররম ১৪৪৬

পাইলসের যন্ত্রণা থেকে মুক্তি চাইলে খাবারগুলো এড়িয়ে চলুন

আজকের টাঙ্গাইল

প্রকাশিত: ৫ জুলাই ২০২৪  

আমাদের সমাজে পাইলসে ভুগছেন এমন মানুষের সংখ্যা কম নয়। বর্তমানে কম বয়সীদের মধ্যেও এ সমস্যা বাড়ছে। এর কারণ হলো অনিয়মিত জীবনযাপন ও অস্বাস্থ্যকর খাবারের অভ্যাস।
শরীরের নিম্ন মলদ্বারের শিরা ফুলে যাওয়ার কারণে পায়ুপথের ভেতরে ও বাইরে ব্যথা অনুভূত হতে পারে। শারীরিক এ জটিলতাকে অর্শ্বরোগ বলা হয়, ইংরেজি শব্দ ‘পাইলস’ নামেই তা অধিক পরিচিত।

বিশেষজ্ঞরা কোষ্ঠকাঠিন্য এবং পাইলস প্রতিরোধ করার জন্য নির্দিষ্ট ডায়েট প্যাটার্ন অনুসরণ করার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। আপনি যদি মলত্যাগের সময় কোনো ধরনের অস্বস্তি বা ব্যথা অনুভব করেন, তবে আপনার নিত্যদিনের খাদ্যতালিকায় কিছু পরিবর্তন আনতে হবে। যেহেতু কোষ্ঠকাঠিন্য পাইলসের যন্ত্রণাকে আরো বাড়িয়ে তোলে, তাই প্রথমেই তালিকা থেকে কিছু খাবার আপনাকে বাদ দিতে হবে।

পাইলসের যন্ত্রণা থেকে মুক্তি চাইলে খাবারগুলো এড়িয়ে চলুন-

তেলে ভাজা খাবার: তেলে ভাজা খাবার খেতে কার-না ভালো লাগে? মুচমুচে স্বাদের জন্য তাই তেলে ভাজাকে আমরা খাদ্যতালিকা থেকে বাদ দিতে পারি না। কিন্তু এই তেলেভাজা খাবার পাইলসের প্রধান শত্রু। বাইরে থেকে কেনা বেশির ভাগ তেলে ভাজা খাবারই পোড়া তেলে ভাজা হয়। এ ধরনের খাবার খেলে গ্যাসের সমস্যার পাশপাশি পাইলসের যন্ত্রণাও বেড়ে যেতে পারে বহুগুণে। তাই ব্যথামুক্ত থাকতে চাইলে তেলে ভাজা খাবার বাদ দিন।

দুগ্ধজাত খাবার: দুধ ও দুধ দিয়ে তৈরি নানা খাবার স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী, আমরা এমনটাই জানি। কিন্তু পাইলসের জন্য এ দুগ্ধজাত খাবারই ভীষণ ক্ষতিকর। কারণ, পেট ফাঁপা, অম্বল, বদহজম–এ সমস্যাগুলোর সঙ্গে দুগ্ধজাত খাবার যেমন জড়িত তেমনি পাইলসও জড়িত। তাই আপনার যদি পাইলসের সমস্যা থাকে তাহলে এ খাবারগুলো আজই পরিহার করুন।

অতিরিক্ত লবণ: লবণের ভালোবাসা নিয়ে গপ্পোর শেষ নেই। তবে অতিরিক্ত নোনতা খাবার পাইলসের রোগীদের জন্য ভালোবাসার বদলে নিয়ে আসে যন্ত্রণা! গবেষণায় দেখা গেছে, অতিরিক্ত লবণাক্ত খাবার গ্রহণের কারণে হতে পারে পাইলস।

মসলাযুক্ত খাবার: মসলাযুক্ত ঝাল খাবার অনেকের কাছে প্রিয়। তবে প্রিয় হলেও করার কিছু নেই, পাইলসের সমস্যা থেকে মুক্ত থাকতে চাইলে মসলাদার খাবার বাদ দিতে হবে।

প্যাকেটজাত ও প্রক্রিয়াজাত খাবার: সময়ের অভাবে আমরা অনেক সময় বেছে নিই প্যাকেটজাত বিভিন্ন খাবার। প্রক্রিয়াজাত হওয়ায় তা তৈরি করে নেয়া যায় সহজেই। কিন্তু পাইলস থাকলে আপনাকে এগুলো পরিহার করতে হবে।

লাল মাংস: রেড মিট বা গরু-খাসির মাংস পাইলসের জন্য আরো একটি উদ্দীপক। রেড মিট হজম হতে সাধারণত বেশি সময় লাগে। তাই আপনি যখনই বুঝবেন আপনার পাইলসের অবস্থা খারাপ দিকে যাচ্ছে, তখনই এ ধরনের খাবার বাদ দিয়ে ভেজেটেরিয়ান ডায়েট অনুসরণ করবেন, এতে আরাম পাবেন।

আজকের টাঙ্গাইল
আজকের টাঙ্গাইল