• মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৭ ১৪৩১

  • || ১৫ মুহররম ১৪৪৬

ঈদ আনন্দ-উল্লাসে মুখর ড্রিম হলিডে পার্ক

আজকের টাঙ্গাইল

প্রকাশিত: ২১ জুন ২০২৪  

পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে টানা পাঁচদিন ধরে ঈদ আনন্দ-উল্লাসে মুখর নরসিংদীর ড্রিম হলিডে পার্ক। শুক্রবার ঈদ পরবর্তী ছুটির দিনে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে পার্কে বাড়ে দর্শনার্থীর সংখ্যা। এবার ঈদ আনন্দে বৈরী আবহাওয়া থাকার পরও ভ্রমণ পিপাসুরা দূর-দূরান্ত থেকে পার্কে বেড়াতে আসেন।
নরসিংদী সদর উপজেলার মেহেরপাড়া ইউপির চৈতাব এলাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশে প্রায় ১২০ বিঘা জমির ওপরে নির্মিত এ পার্কটি।

পার্কটি ঘুরে দেখা যায়, সকালে ড্রিম হলিডে পার্কের প্রধান ফটকের সামনে টিকিট কাউন্টারের সামনে বিশাল লাইন। লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিট কিনছেন বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ। পার্কে প্রবেশ করতে হলে দর্শনার্থীদের গুনতে হচ্ছে জনপ্রতি ৩২০ টাকা। এছাড়া প্রতিটি রাইডের জন্য টিকিট কাটতে হচ্ছে ৬০ টাকা থেকে শুরু করে ৩৫০ টাকা পর্যন্ত।

এ পার্কে রয়েছে সুয়াং বুট, ক্যাবলকার, সুইংকার, ভূতের বাড়ি, স্কাই ট্রেন এবং ওয়াটার কিংডমসহ রয়েছে ২৬ টি রাইড। এসব রাইডে চড়ে পরিবার পরিজন নিয়ে ঈদ আনন্দ উপভোগ করতে পেরে খুশি সব বয়সী দর্শনার্থীরা।

এ বছর পার্কে নতুন যুক্ত হয়েছে সুনামি ঢেউ নামে নতুন একটি রাইড। পার্ক কর্তৃপক্ষ দিচ্ছে সর্বোচ্চ নিরাপত্তার আশ্বাস।

তবে এ পার্কে শিশু-কিশোর, তরুণ-তরুণীসহ সব বয়সী দর্শনার্থীদের আর্কষণ হলো ডিজে মিউজিকের তালে তালে ওয়াটার কিংডমে পানির ঢেউয়ে দুলে নেচে গেয়ে আনন্দ ফূর্তি করা। ওয়াটার পার্কে বেলা ১২টার দিকে দর্শনার্থীরা প্রবেশ করেই শুরু করে হৈ হুল্লোড়, দাপাদাপি আর আনন্দ-চিৎকার।

পার্কের দক্ষিণে বোট ট্রার্মিনাল, পশ্চিমে রয়েছে বর্তমার সরকারের সাফল্যের চিত্র স্বরূপ স্বপ্নের পদ্মা সেতু, সাব মেরিন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট, কর্ণফুলী টানেল, দ্বীপ, একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পে সাজানো আদর্শ গ্রামসহ সাফারি জোন।

সাফারি জোনে থাকা সাকিব রহমান, পাভেল ভূঁইয়া ও তাদের সহপাঠিরা জানান, কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট থেকে বেড়াতে এসেছেন তারা। দুপুরে ওয়াটার পার্কে গোসল দিয়ে এখন সাফারি জোনে এসেছেন। এখানে এসে সারাদিনের ক্লান্ত দূর হয়ে গেছে বলে জানিয়ে হোররে হোররে করতে থাকেন তারা।

ড্রিম হলিডে পার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রবীর কুমার সাহা বলেন, দেশের বৃহৎ উন্নয়নের অবকাঠামোগুলো এই পার্কে রয়েছে। তাই মানুষ বিদেশে ঘুরতে না গিয়ে আমাদের পার্কে একবার এসে যেন ঘুরে যায় এই আহ্বান জানাই। এবার ঈদে বৈরী আবহাওয়া থাকার পরও দূর-দূরান্ত থেকে পার্কে বেড়াতে আসেন দর্শনার্থীরা। তবে এবার উপস্থিতি কম হলেও সন্তোষজনক রয়েছে। বিশেষ করে দর্শনার্থীদের চাহিদার বিষয়টি বিবেচনায় রেখে পার্কে নতুন নতুন রাইড সংযোজন করা হয়েছে।

আজকের টাঙ্গাইল
আজকের টাঙ্গাইল