• শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২৯ ১৪৩১

  • || ০৫ মুহররম ১৪৪৬

জামালপুর ডিসি কান্ডের ভিডিও ভাইরালকারী কুলাঙ্গার :এডভোকেট বাবুল

আজকের টাঙ্গাইল

প্রকাশিত: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

এই সরকারকে আবারো ক্ষমতায় আনার তৎপরতার অংশ হিসেবে বহুল আলোচিত জামালপুরের সেই ডিসি ইমরান আহমেদের বক্তব্যের ভিডিও ভাইরালকাারীকে কুলাঙ্গার বলে মন্তব্য করেছেন, ইসলামপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট জামাল আব্দুল নাছের বাবুল। 

তিনি ১৭ সেপ্টেম্বর ইসলামপুরে স্থানীয় সরকার উন্নয়ন মেলায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমন মন্তব্যে রীতিমতো সমালোচিত হচ্ছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার বক্তব্যটিও ভাইরাল হয়ে যায়। 

সাংবাদিকদের প্রতি এমন অশালিন মন্তব্যের প্রতিবাদও জানানো হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।
প্রত্যাহার হওয়া সেই ডিসির শুভাকাঙ্খি হিসেবে তিনি ডায়নামিকও উল্লেখ করে বলেন-আওয়ামী লীগের ভোট চেয়ে প্রত্যাহার হওয়া জামালপুরের সেই ডিসি ইমরান বক্তব্যের ভিডিও ভাইরাল কারী কুলাঙ্গার।
 
 উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সিরাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় উপজেলা চেয়ারম্যানের ১ মিনিট ২৭ সেকেন্ডের ভিডিও বক্তব্যে তিনি বলেছেন, আমার মনটা খারাপ। জামালপুরবাসীর জন্য দুর্ভাগ্য। আমরা বহু দিন পরে একজন “ডায়নামিক” লোক পেয়ে ছিলাম এই এলাকার জন্য। জননেত্রী শেখ হাসিনার কল্যাণে পেয়েছিলাম। এক মাস ২৩ দিন দায়িত্ব পালন শেষে তিনি (ডিসি ইমরান আহমেদ) চলে যাচ্ছেন। জানি না এই জামালপুরবাসীর মধ্যে কোন “কুলাঙ্গার” ছিলেন। যিনি ডিসি ইমরান আহমেদের একটি বক্তব্যকে ভাইরাল করে দিয়ে জামালপুরবাসীর কপালে কুঠারাঘাত করেছেন।’

তিনি আরও বলেন, এই ভদ্র লোক যদি জামালপুরে তাঁর মেয়াদোত্তীর্ণ করতে পারতেন, তাহলে আমি বিশ্বাস করি, এই জামালপুরের ভঙ্গুর চেহারাটা বদলে দিতেন। প্রত্যেকটা দপ্তরে মানুষের সেবা সহজ থেকে সহজতর করে দিতেন। পরিবেশ যেটা, সেটা সুন্দর হতো।’

বক্তব্যের শেষে বলেন, ‘আমরা সেই মানুষটিকে রাখতে পারলাম না। মানুষটি চলে গেলেন। যেখানেই তিনি যাবেন, সেখানেই তিনি আলো ছড়াবেন। কিন্তু আমরা বঞ্চিত হলাম। আমরা তাঁকে ধরে রাখতে পারলাম না। এই জন্য আমার মন খারাপ। আসলে কথা বলার মতো আমার মানসিকতা নেই।’

এ ব্যাপারে উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জামাল আব্দুন নাছের বাবুলের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করতে কয়েকবার চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।

উল্লেখ্য , ১১ সেপ্টেম্বর মাদারগঞ্জ পৌরসভার নবনির্মিত ভবনের উদ্বোধনের বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক বলেন, আমাদের অনেক কষ্টে অর্জিত এই স্বাধীনতা। আমাদের স্বাধীনতার সুফল যোগাযোগ ও উন্নয়ন। এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হবে। যে সরকার এই উন্নয়ন করেছে এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য সেই সরকারকে আবার পুনরায় নির্বাচিত করে, আবার ক্ষমতায় আনতে হবে। এটা হবে আমাদের প্রত্যেকের অঙ্গীকার। আমি এটা মনে করি, আপনারা নিজের চোখে দেখে সরকারের প্রতি অকৃতজ্ঞ হবেন না। ডিসির এই বক্তব্যটি জনপ্রশাসন কর্তৃপক্ষের নজরে আসলে তাকে প্রত্যাহার করা হয়।
১৪ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস প্রশাসন একাডেমির উপ-পরিচালক (উপসচিব) মো. শফিউর রহমানকে  জামালপুরের জেলা প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে সরকার।

আজকের টাঙ্গাইল
আজকের টাঙ্গাইল