• মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৪ ১৪৩১

  • || ১৯ জ্বিলকদ ১৪৪৫

আজকের টাঙ্গাইল

শখ থেকে স্বাবলম্বী ইয়াসমিন

আজকের টাঙ্গাইল

প্রকাশিত: ২৮ মার্চ ২০২৩  

সফল উদ্যোক্তা ইয়াসমিন আকতার। বাড়ি নাটোরের সিংড়া পৌর এলাকার ২ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর দমদমা গ্রামে। শখের বসে শুরু করেছিলেন গরু পালন। শখ থেকে এখন স্বাবলম্বী তিনি। নারীরা যে শুধু সংসারের দৈনন্দিন কাজের মধ্যই নয়, অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির জন্য ভূমিকা রাখতে পারে তারই উদাহরণ ইয়াসমিন। ইয়াছমিন আকতার সপ্না, একজন সফল ডেইলি অ্যান্ড এগ্রো খামারি। শুধু খামারিই নয়, পাশাপাশি একজন ফ্রিল্যান্সার। 
জানা যায়, দিনে সংসারের কাজ খামার দেখাশোনা ও বাচ্চাকে স্কুলে নিয়ে আসা যাওয়া করেন তিনি। রাতে ফ্রিলান্সার হিসেবে কাজ করেন ইয়াসমিন। ডিজিটাল মার্কেটিং, ভিডিও এডিটিং, ওয়েব ডিজাইনার হিসেবে দক্ষতা অর্জন করেছেন তিনি। এছাড়া ঘাস চাষে একজন সফল কৃষক তিনি। সাংসার জীবনে ইয়াসমিন আকতার এক কন্যা সন্তানের জননী। মেয়ে জেনি, বিয়াম ল্যাবরেটরি স্কুলের মেধাবী ছাত্রী। স্বামী জাহিদ হাসান কীটনাশক ব্যবসায়ী। 

ইয়াসমিন আকতার বলেন, হাইড্রোপনিক ঘাস চাষ শুরু করেছি এক বছর আগে। বর্ষার সময় এই ঘাস সবচেয়ে বেশি উপযোগী। তাছাড়া খরচও কম। এই ঘাস চাষ করে নিজেদের চাহিদাও মেটানোর পাশাপাশি বিক্রিও করছি। 

তিনি আরো বলেন, ২০১৬ সালের শেষে শখের বসে একটা গাভি দিয়ে খামারের যাত্রা শুরু করি। আল্লাহর রহমতে আমার আর পিছনে তাকাতে হয়নি। নিজের কঠোর পরিশ্রম দিয়ে শখ থেকে করা খামার এখন বাণিজ্যিক রুপ নিয়েছে। এখন আমার খামারের ১১টা গরু আছে। চারটি গাভি দুধ দেয় প্রতিদিন ৪০-৫০ কেজি। দুধ বিক্রি করে মাসে ৩০ হাজার টাকা আয় হয়। ফ্রিল্যান্সিং করে মাসে ১০-১৫ হাজার আয় হয়। আমার ইনকাম বছরে প্রায় ৭-৮ লাখ। ইচ্ছা আছে অনেক বড় খামার করার।

উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ সেলিম রেজা বলেন, আমি তার বিষয়টি শুনেছি। সরেজমিনে গিয়ে তার কাজ দেখার ইচ্ছে রয়েছে। সব সময় কৃষি বিভাগ তার পাশে থাকবে বলে জানান তিনি।

আজকের টাঙ্গাইল
আজকের টাঙ্গাইল