• সোমবার ০৪ মার্চ ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ২০ ১৪৩০

  • || ২২ শা'বান ১৪৪৫

আজকের টাঙ্গাইল

বিশ্বমানের চলচ্চিত্র তৈরি করুন: প্রধানমন্ত্রী

আজকের টাঙ্গাইল

প্রকাশিত: ১৫ নভেম্বর ২০২৩  

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশের সিনেমা যেন বিশ্বব্যাপী পরিচিতি অর্জন করতে পারে সেজন্য যথাযথ প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে হবে। সেই সঙ্গে বৈশ্বিক মান বজায় রেখে চলচ্চিত্র নির্মাণের ওপর গুরুত্ব দিতে হবে।
তিনি বলেন, চলচ্চিত্র শিল্পী, পরিচালক এবং প্রযুক্তিবিদদের উন্নত প্রশিক্ষণ নিয়ে আরো মানসম্পন্ন চলচ্চিত্র নির্মাণ করা উচিত, যেন আমাদের সিনেমা বিশ্বমানের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করতে পারে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার-২০২২’ প্রদান অনুষ্ঠানে দেওয়া ভাষণে এসব কথা বলেন শেখ হাসিনা। এ সময় জাতির পিতার ছোট কন্যা এবং প্রধানমন্ত্রীর ছোট বোন শেখ রেহানা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে বিশ্বমানের চলচ্চিত্র যেন নির্মাণ হয় সেই পদক্ষেপ আপনারা নেবেন, সেটাই আমি চাই। এ সময় তার সরকার বিশ্বমানের আধুনিক এফডিসি কমপ্লেক্স নির্মাণ করে দিচ্ছে বলেও উল্লেখ করেন।

তিনি বলেন, আমরা চাই, আমাদের চলচ্চিত্র দেশের অঙ্গন ছাড়িয়ে বিদেশেও সমাদৃত হোক। তিনি এই বিষয়টিতেও নজর দেওয়ার জন্য চলচ্চিত্র শিল্পী, কলা-কুশলী সবার প্রতি আহ্বান জানান। কেননা মানুষের জীবনে যেহেতু স্বচ্ছলতা এসেছে এবং তারা বিনোদনের দিকেও ঝুঁকছে কাজেই তাদের জন্য বিনোদনের ক্ষেত্রটাও আপনারা তৈরি করে দিতে পারেন।

তিনি বলেন, আমাদের যারা চলচ্চিত্র অঙ্গনের ভাই-বোনেরা এখানে আছেন, বিভিন্ন চলচ্চিত্র নির্মাণ করছেন তাদের আমি বলবো আপনারা একটু নজর দিলে সমাজের বিভিন্ন দিক তুলে ধরে যে ভালো ভালো চলচ্চিত্র নির্মাণ করা যায়; তা এরই মধ্যে আপনারা প্রমাণ করেছেন। ইদানিং নির্মিত অনেক চলচ্চিত্রই মানসম্পন্ন এবং পারিবারিক বিনোদন ধর্মী বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

জাতীয় সংসদের শেষ অধিবেশনে ‘বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সার্টিফিকেশন আইন-২০২৩’ তার সরকার পাস করে দিয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা মনে করি যে আইনের বলে চলচ্চিত্র শিল্পে মাননির্ণয়ের ব্যবস্থাও সন্নিবেশিত হবে। আমরা চাই না আমাদের দেশে অশ্লিল চলচ্চিত্র বা পাইরেসি চলুক।

তিনি বলেন, আমাদের সবারই যে মেধা আছে সেই মেধা কাজে লাগিয়ে ভালো চলচ্চিত্র নির্মাণ করা যায়। সে ব্যবস্থাটা যেন হয় সেটাই আমরা চাই।

এ সময় ফিল্ম আর্কাইভ ভবন এবং ১৬তলা আধুনিক তথ্য ভবন নির্মাণসহ সরকারের চলচ্চিত্র ও গণমাধ্যম উন্নয়নের বিভিন্ন পদক্ষেপও তুলে ধরেন এবং প্রশিক্ষণের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

তিনি বলেন, সরকার যে ট্রেনিং ইনস্টিটিউট করে দিয়েছে সেখান থেকে প্রশিক্ষণ নেয়া যেতে পারে। চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা বিষয়টিতে যেন মন দেন।

তিনি শিশুতোষ চলচ্চিত্র নির্মাণ বৃদ্ধি করার ওপর গুরুত্বারোপ করে এজন্য তার সরকার প্রয়োজনীয় সব সহযোগিতা দেবে।

প্রধানমন্ত্রী অনুষ্ঠানে বিজয়ী শিল্পী ও কলাকুশলীদের হাতে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার-২০২২ তুলে দেন।

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি হাসানুল হক ইনু। স্বাগত বক্তব্য রাখেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. হুমায়ুন কবির খন্দকার। আজীবন সম্মাননা প্রাপ্ত শিল্পী রোজিনা অনুষ্ঠানে নিজস্ব অনুভূতি ব্যক্ত করেন।

আজকের টাঙ্গাইল
আজকের টাঙ্গাইল