• সোমবার   ১০ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৬ ১৪২৭

  • || ২০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

আজকের টাঙ্গাইল
সর্বশেষ:
পুনরায় বিজয়ী হওয়ায় রাজাপাকসেক কে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন পাহাড়ে থাকা উপজাতিদের বুঝতে হবে ও নির্ধারণ করতে হবে তারা কি চান? আদিবাসী বিষয়ক আন্তর্জাতিক সনদ বাস্তবায়ন করতে বাংলাদেশ প্রেক্ষাপট কাজিপুরে বঙ্গমাতা সাংস্কৃতিক জোটের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত বঙ্গবন্ধু-বঙ্গমাতা মাটির দিকে চেয়ে চলতে শিখিয়েছেন : প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশে বসবাসকারী উপজাতিরা কি Indigenous নাকি Tribe? আজ বিশ্ব আদিবাসী দিবস উদযাপন নিয়ে পাহাড়ে ধুম্রজাল ভূঞাপুরে জাতীয় শোক দিবসের প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত ভূঞাপুরে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ খামারীদের মাঝে গো-খাদ্য বিতরণ ঘাটাইলের ছয়ানী বকশিয়া দাখিল মাদরাসায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি
৩০৩

ফেনী‌তে এক পাষন্ডের ফেসবুক লাইভে স্ত্রীকে খুন

আজকের টাঙ্গাইল

প্রকাশিত: ১৫ এপ্রিল ২০২০  

ফেনীতে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক লাইভে স্ত্রী তাহমিনা আক্তারকে কুপিয়ে হত্যা করেছেন টুটুল ভূঁইয়া নামে এক ব্যক্তি। এ ঘটনায় তাকে আটক করেছে ফেনী পুলিশ। বুধবার দুপুরে ফেনী পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের বারাহীপুরে এ ঘটনা ঘটে।

 

ফেসবুক লাইভ ভিডিওর ক্যাপশনে লেখা ছিল, ‘সবাই আমাকে ক্ষমা করবেন। আমার বাবা-মা, ভাই-বোন ও অনাথ মেয়েটার খেয়াল রাখবেন।’

 

ভিডিওতে দেখা গেছে, হত্যার আগে টুটুল বলছিলেন- একজনের জন্য তার পরিবার ধ্বংস হয়ে গেছে। ৮ মাস বয়সী মেয়েকে রেখে চলে যায় সে। তার জীবন ধ্বংস হয়ে গেছে দাবি করে স্ত্রী তাহমিনাকে কোপাতে থাকেন টুটুল। এতে তাৎক্ষণিক মৃত্যু হয় তাহমিনার।

 

এরপর টুটুল বলেন, সে এখন শেষ। আপনারা আমার বাবা-মা ও এতিম মেয়েকে দেখে রাখবেন। অন্য কেউ নয়, এ খুনের সঙ্গে আমি নিজেই জড়িত।

 

হত্যাকাণ্ডের পর মেয়েকে নিয়ে আরেকটি ভিডিও পোস্ট করেন টুটুল ভূঁইয়া। সেখানে তিনি বলেন, আমার মেয়ের যখন ৮ মাস বয়স তখন আমার স্ত্রী চলে যায়। এখন আবার সে ফেরত এসেছে। তার পুরো পরিবার ব্ল্যাকমেইল করে অনেক সমস্যায় ফেলেছে। বাচ্চা মেয়েটাকে অনেক নির্যাতন করা হয়েছে।

 

এ ভিডিওতে আত্মহত্যার ইঙ্গিতও দেন টুটুল। তবে ঘণ্টাখানেক পর তার প্রোফাইলে লাইভ ভিডিওটি পাওয়া যায়নি।

 

ফেনী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) সাজেদুল ইসলাম জানান, ঘটনার পরপরই টুটুলকে আটক করা হয়েছে। তার পোস্টগুলো যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। নিহতের স্বজনরা মামলা করলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

 

জিজ্ঞাসাবাদে টুটুল জানান, তিনি ঢাকায় একটি গার্মেন্টসে কাজ করতেন। ওই সময় তার স্ত্রী তাহমিনা পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন। বিষয়টি নিয়ে তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এরই জেরে তাহমিনাকে হত্যা করেছেন তিনি।

আজকের টাঙ্গাইল
আজকের টাঙ্গাইল
সারাদেশ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর