• রোববার   ১৬ মে ২০২১ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১ ১৪২৮

  • || ০৪ শাওয়াল ১৪৪২

আজকের টাঙ্গাইল

ধুনটে ঘুড়ি উড়ানোর দৃশ্য দেখতেই মেলা

আজকের টাঙ্গাইল

প্রকাশিত: ৭ জুলাই ২০২০  

আকাশে রঙিন হাতছানি, নিচে রংবাহার। সাদা মেঘের কোলে লেগেছিল লাল-নীল-সবুজের মেলা। আর সেই মেলায় শামিল হয়েছিলেন নানা বয়সের মানুষ। হাতে লাটাই, সুতো। আর ওপ্রান্তে বাঁধা বন্ধনহীন রঙিন ঘুড়ি। আষাঢ়ে হাওয়ায় পতপত করে উড়ে বেড়িয়েছে দিনভর। এটি ছিল ঘুড়ি উড়ানো প্রতিযোগীতার নয়নাভিরাম দৃশ্য। এ উপলক্ষে বগুড়ার ধুনট উপজেলার খাদুলী গ্রামে বসে প্রাণের মেলা।    

 

জানা গেছে, গ্রামের তরুণরা দুইদিন ধরে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করেন। সেখানে শিশু-তরুণ-যুবক এমনকি মাঝ বয়সীরাও স্বাদ নিচ্ছেন ঘুড়ি উড়ানোর। ঘুড়ির টানে মেলায় ভিড় জমিয়েছিলেন বেশিরভাগ মাঝ বয়সী। অনেকেই সঙ্গে নাতি-নাতনিদের নিয়ে এসেছিলেন। সব ধরনের মানুষ এলেও ঘুড়ি নিয়ে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন পঞ্চাশোর্ধরা। সোমবার সন্ধ্যার দিকে শেষ হয়েছে ঘুড়ি উৎসবের প্রাণের মেলা। 

 

মেলায় আগত বৃদ্ধ আব্দুল জলিল জানান, ছোটবেলায় সকাল হলেই ঘুড়ি, লাটাই ঘুরতো মনে। আগের দিন অন্য পাড়ার ছেলে ঘুড়ি কেটে দিয়েছিল, তার জবাব দিতে হবে। এখন সেই সব দিন আর নেই। বাচ্চারাও এখন কম্পিউটারে কিংবা মোবাইলে ভিডিও গেইম খেলা খেলে। একই রকম আবেগমথিত হয়ে পড়েন মেলায় আগত মাঝ বয়সী আরো অনেক দর্শক। উৎসবের উদ্দেশ্য যে সফল তা বোঝা গেলে পাকা চুলের আড়ালে তাদের চকচকে চোখ দেখে।

 

ঘুড়িপ্রেমীরা জানান, এক সময় গ্রামের ছেলেপুলেরা প্রচুর ঘুড়ি উড়াতো। বিকেলের আকাশ ছেয়ে যেত নানা রঙের ঘুড়িতে। দেখে মনে হতো, নানান রঙের মেলা বসেছে আকাশ জুড়ে। কোনো ঘুড়ি কাটা গেলে মনে হতো রঙের মেলা থেকে যেন একটি রঙ খসে পড়ল। খসে পড়া রঙটি ভেসে ভেসে দূর থেকে বহু দূরে চলে যেত। তারই খÐচিত্র আজ আকাশে দেখা গেল।  

 

মেলার আয়োজক ফারুক হোসেন ও মিঠু মিয়া জানান, করোনাভাইরাসে থমকে গেছে জনজীবন। নেই আগের মত কাজকর্ম। বন্ধ হয়ে গেছে বিনোদনের সব জায়গা। বন্ধ রয়েছে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তাই বড়দের পাশাপাশি শিশু-কিশোররাও ঘরবন্দী হয়ে ভুগছে বিষন্নতায়। ঠিক এমন সময় মানসিক প্রশান্তি পেতেই ঘুড়ি উড়ানোর উৎসবের আয়োজন করা হয়।

আজকের টাঙ্গাইল
আজকের টাঙ্গাইল