• মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১ ||

  • চৈত্র ৩০ ১৪২৭

  • || ০২ রমজান ১৪৪২

আজকের টাঙ্গাইল

টাঙ্গাইল পৌরসভায় পুরনো নারী কাউন্সিলরদের প্রাধান্য

আজকের টাঙ্গাইল

প্রকাশিত: ১ ফেব্রুয়ারি ২০২১  


শনিবার (৩০ জানুয়ারি) বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্যে দিয়ে টাঙ্গাইল পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৬টি সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদের নির্বাচনে বর্তমান ৫ কাউন্সিলর প্রার্থী বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। এছাড়া নতুন এক নারী কাউন্সিলর প্রার্থী নির্বাচনে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন।


১নং, ২নং এবং ৩নং ওয়ার্ডে মাহমুদা বেগম জেবু (চশমা) বেসরকারীভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তিনি পান ৯ হাজার ৭৯৬ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি (জবা) প্রার্থী সুমী আক্তার পেয়েছেন ৫ হাজার ১১ ভোট। এছাড়া ফাহিমা বেগম (আনারস) পান ১,৩৬৩ ভোট। এই ওয়ার্ডে মোট ভোটার ২৫ হাজার ৫৫১ জন। এর মধ্যে ১৬ হাজার ১৭০টি ভোট বৈধ হয় এবং ৬৪২টি ভোট বাতিল হয়।


৪নং, ৫নং এবং ৬নং ওয়ার্ডে সেলিনা আক্তার (আনারস) বেসরকারীভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তিনি পান ৬ হাজার ১৪৮ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি (জবা) পপি গুহ পেয়েছেন ৩ হাজার ৪৬১ ভোট। এছাড়া আশা আক্তার (চশমা) পান ১ হাজার ৪৬৫ ভোট, তাসনিম শিরীন চৌধুরী (টেলিফোন) পান ১,৪১৩ ভোট, ববি পান্না (দ্বিতল বাস) পান ৩২৩ ভোট, রোকেয়া আক্তার (অটোরিক্সা) পান ৯৩৭ ভোট। এই ওয়ার্ডে মোট ভোটার ১৮ হাজার ৫৭৮ জন। এর মধ্যে ১৩ হাজার ৭৪৭টি ভোট বৈধ হয় এবং ৫৮১টি ভোট বাতিল করা হয়।


৭নং, ৮নং এবং ৯নং ওয়ার্ডে খালেদা আক্তার স্বপ্না (জবা ফুল) বেসরকারীভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তিনি পান ৫ হাজার ৭৫৬ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি (আনারস) প্রার্থী হাজেরা বেগম পান ৫ হাজার ৫১৩ ভোট। আকলিমা বেগম (চশমা) পান ৫৪৩ ভোট, শামছুন্নাহার (টেলিফোন) পান ১,১১৯ ভোট, শামীমা বেগম (আংটি) পান ৮৭৭ ভোট। এই ওয়ার্ডে মোট ভোটার ১৮ হাজার ৬৬৪ জন। এর মধ্যে ১৩ হাজার ৮০৮ টি ভোট বৈধ হয় এবং ৪২৩ টি ভোট বাতিল হয়।


১০নং, ১১নং এবং ১২নং ওয়ার্ডে সেলিনা আক্তার (চশমা) বেসরকারীভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তিনি পান ৩ হাজার ৮৬৯ ভোট। তিনি এবার প্রথম নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি (হারমোনিয়াম) নার্গিস আক্তার পেয়েছেন ২ হাজার ৯৮৪ ভোট। বিথী আক্তার (আনারস) পান ২,৪৫১ ভোট, মরিয়ম সরকার (জবাফুল) পান ১,৫৮৯, হালিমা আক্তার (বলপেন) পান ৮১৬ ভোট, রুনা আখতার (অট্রোরিক্সা) ৬৯৩ ভোট, মাহমুদা খাতুন (টেলিফোন) পান ৪৯৯ ভোট, শামিমা ইসলাম সুমি (আংটি) পান ১২৬ ভোট। এই ওয়ার্ডে মোট ভোটার ১৯ হাজার ৭৯৬ জন। এর মধ্যে ১৩ হাজার ২৭ টি ভোট বৈধ হয় এবং ৫৩৪ টি ভোট বাতিল হয়।


১৩নং, ১৪নং এবং ১৫নং ওয়ার্ডে উল্কা বেগম (টেলিফোন) বেসরকারীভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তিনি পান ৩ হাজার ৮৬৮ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি (অটোরিকশা) প্রার্থী মাহমুদা জামান বিউটি পেয়েছেন ২ হাজার ৩২৭ ভোট। রোকেয়া আহমেদ রেনু (চশমা) পান ২,২৫৯ ভোট, নাসরিন আজাদ (জবা ফুল) পান ১,৫৭৮ ভোট, নীলা আক্তার (দ্বিতল বাস) পান ১,৪৯৭ ভোট, রহিমা বেগম (হারমোনিয়াম) পান ৬০৫ ভোট, এবং শাহনাজ পারভিন ফিরোজ পান ৪১৪ ভোট। এই ওয়ার্ডে মোট ভোটার ২২ হাজার ২২৪ জন। এর মধ্যে ১২ হাজার ৫৪৮ টি ভোট বৈধ হয় এবং ৭৫৬ টি ভোট বাতিল হয়।


১৬নং, ১৭নং এবং ১৮নং ওয়ার্ডে হোসনেয়ারা বিউটি (চশমা) বেসরকারীভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তিনি পান ৩ হাজার ৫১২ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী (অটোরিক্সা) মাহাবুব আক্তার (মিলি) পেয়েছেন ২ হাজার ৯১০ ভোট। এছাড়া রাশিদা আক্তার (জবাফুল) পান ২৫৩৩ ভোট, মনোয়ারা বেগম (আনারস) পান ১,২৯৪ ভোট। এই ওয়ার্ডে মোট ভোটার ১৯ হাজার ৬০৪ জন। এর মধ্যে ১০ হাজার ২৪৯টি ভোট বৈধ হয় এবং ৮৭০টি ভোট বাতিল হয়।

আজকের টাঙ্গাইল
আজকের টাঙ্গাইল